মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে খোলা চিঠি ইভ্যালির এক গ্রাহকের

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে কে পাঠাতে পারা যতগুলো মেইল আইডি ছিলো সব গুলোতে পাঠিয়েছি। কাল হয়তোবা ফোনে ক্ষুদে বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করবো। এর একটাই কারন ইভ্যালির প্রতি ভালোবাস Mohammad Rassel ভাইয়ের প্রতি ভালোবাসা। ভাই আমরা আপনার সাথে আছি। আপনারাও সাধ্যমতো এগিয়ে আসুন।

ফেসবুক থেকে সংগ্রহীত, লেখাটিঃ

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা,
     আপনি/আপনার অধিদপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ আমার এ বার্তাটি পড়ছেন বলে আমি নিজেকে কৃতার্থ দাবি করছি।জননেত্রীর চেয়ে জননী নামে ও রুপেই আপনি অধিক পরিচিত। সেই দিক থেকে আপনার সন্তানতুল্য একজন শিক্ষার্থী হিসেবে আপনাকে একটি অনুরোধ করবো।
আমি এম, এ, ওবাঈদ। এইচ,এস,সি পরীক্ষার্থী। স্বপ্নের দ্রষ্টা, এদেশের রুপকার, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের গড়া এ দেশের মানুষকে তিনি শুধু স্বপ্ন দেখিয়েই সীমাবদ্ধ রাখেন নি। সেই স্বপ্ন পুরন করার প্রত্যয় ও বাস্তব করেছেন দৃঢ়ভাবে।তাঁকে নিয়ে বলার মতো যোগ্যতা/জ্ঞান কোনটাই আমার নেই । কিন্তু এটা বলতে পারি, সেই পথ ধরে আপনি বাঙালিকে স্বপ্ন শুধু দেখতে নয় বাস্তব করতে শিখিয়েছেন। আজ বাংলাদেশে উদ্যোক্তা হয়, জিডিপিতে এগিয়ে যায়। মায়ের কাছে যেমন সকল সন্তান সমান তেমনি আমি আপনার দেশের সন্তানতুল্য নাগরিক হয়ে আপনার নিকট দাবি জানাচ্ছি। ভুল ত্রুটি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।
৩৫ লক্ষ গ্রাহক নিয়ে দেশীয় ই-কর্মাস ইভ্যালি আজ সকলের শীর্ষে। আপনার আদর্শ নিয়ে গড়ে ওঠা সজীব ওয়াজেদ জয় স্যার যখন তথ্য প্রযুক্তিতে পরিবর্তন আনতে ব্যাকুল তখনই আজ দেশের একজন উদ্যোক্তা আপনার স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ ও ভিশন ২০২১ পুরন করতে চেস্টা চালাচ্ছেন। আমি নিজে অনলাইন মার্কেটপ্লেস ইভ্যালির একজন ক্রেতা। মাত্র দেড় বছরের মাথায় বিদেশী ইকমার্স কে পিছনে ফেলে দেশীয় ই-কমার্স সকলের শীর্ষে। ৩৫ লক্ষ গ্রাহক নিয়ে তাদের ব্যবস্থাপনায় কিছু ভুল ছিলো কিন্তু তারা সমাধানের চেষ্টা করছিলো। করোনা কালীন সময়ে অনলাইনে ডেলিভারি ও পন্য কেনা বেচা ও অফার দেওয়ার মাধ্যমে তারা ডিজিটাল দেশের ডিজিটাল অর্থনীতিতে ভুমিকা রেখেছেন।কিন্তু দেশের কিছু স্বার্থান্বেষী মানুষ ও মিডিয়া বিশেষভাবে প্রথম আলো যারা ভুল তথ্য প্রচার করে বিভ্রান্তিতে ফেলে ই-কমার্স কে ষড়যন্ত্র করে ধ্বংস করতে চাচ্ছে। এতে আমাদের মতো লাখ লাখ গ্রাহক, হাজার হাজার মানুষের কমর্সংস্থান নস্ট হয়ে যাবে। তাদের স্বপ্ন নস্ট করে দেওয়া হবে। ইভ্যালি সিইও মোহাম্মদ রাসেল যিনি আজকে কান্না করে দিয়েছেন।কারন এটি তার স্বপ্নের গড়া প্রতিষ্ঠান।। তার এ ই-কমার্স এর ফলে অফারে গ্রামের মানুষও অনলাইনে পন্য কিনছে। আপনার সহযোগিতাই পারে ইভ্যালির ভুলগুলো শুধরিয়ে সঠিক পথে ৩৫ লক্ষ গ্রাহকের স্বপ্ন পুরন করতে। আপনিই পারেন মানুষের স্বপ্নের পুনর্তা দান করতে।
জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিনীত নিবেদন বিষয়টি বিবেচনা করে, দেশীয় ই-কমার্স কে বাঁচিয়ে মানুষের স্বপ্ন পুরন ও এদেশে উদ্যোক্তা হওয়ার পথকে সাবলীল করে বাধিত করবেন।
৩৫ লক্ষ গ্রাহকের পক্ষে,
এম, এ, ওবাঈদ
4.6/5 - (58 votes)
%d bloggers like this: