ছোট ব্যবসার বড় লাইসেন্স

ছোট ব্যবসার বড় লাইসেন্স

কিছুদিন আগে এই ছবিটি আমার ছোখে এসে পড়ে এবং তখন মনে মনে একটা কথা এসে ভিড়ছিলো। উপর থেকে দেখলে পরে নদী যেন দড়ি হয় , ডুবতে থাকা নদীর মাঝে কাঠের টূকরা নৌকা হয়। যাইহোক আমাদের ইকমার্স ইন্ডাস্ট্রির উপর একটা শনির দশা লেগেছে একরকম। আমি নিজেকে এই ইন্ডাস্ট্রির একজন ছাত্র এবং ইন্ডাস্ট্রি সিনিয়রদের স্নেহস্পদ মনে করি। ইভ্যালিকে নিয়ে প্রথম আলোর করা কয়েকটি নিউজ এর পর এই ইন্ডাস্ট্রির উপর দিয়ে আরো কয়েকটা ট্রেন্ড চলে গেছে যা আমরা গা বাচানোর জন্য কোন প্রতিবাদ ছাড়ায় হতে দিয়েছি। তবে একজন ইন্ডাস্ট্রিমেট হিসবে আমার ব্যক্তিগত কিছু কথা আমি বলতে চাইবো-

হাওয়ায় ব্যবসা ট্রেন্ড গেছে

ই-কমার্স এর সুবিধা নেই এমন সকল মানুষই মোটা মোটি এটার বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিল, যা আমাদের এই নব্য কিশোর ইন্ডাস্ট্রিটার জন্য অতন্ত্য ভাল খবর ছিল। আমরা আমাদের নিজেদের অধিকারের ব্যাপারে জানতে ও জানাতে শুরু করেছিলাম সেটাও অতন্ত্য সুখকর ছিল আমার জন্য।

বি এস টি আই বা লাইসেন্স ইস্যু

ছোট ব্যবসা বা একেবারে খুদ্র ব্যবসার উপর যখন বি এস টি আই লাঘু হলো। তখন আমাদের ইন্ডাস্ট্রির উপর তালার উদ্যোক্তারা মনে মনে বা প্রকাশ্যেই মনে করছেন এইবার বাগে পেয়েছি। লাইসেন্স ছাড়া কেউ কোন পন্য বেচলে সে তো আর ব্যবসায়ির জাতই না। তবে ভাই ব্রাদার এই যে অনলাইন এর উপর আসা রেস্ট্রিকশন গুলির জন্য আপনি অনেক সুখী অনুভব করছেন তা কিন্তু এই কাল ছায়াকে প্রশমিত করবে। কখনোই ইন্ডাস্ট্রির উপকার করবে বলে আমি মনে করিনা। তাহলে কি লাইসেন্স করবে না? প্রত্যেক ব্যবসায়ির ব্যবসা শুরুর আগে তার ইথিক্স ঠিক থাকা জরুরী বলে আমি মনে করি। লাইসেন্স করার পর পন্য খারাপ হবেনা এর গ্যারান্টি যেমন নাই। তেমন কেউ জেনে বুঝে নিজের গ্রুপের বা পাড়া প্রতিবেশির ক্ষতিকর পন্য দিবে তাও আমি আসলে মানতে পারিনা। মানে আমার আম্মু ছোট বেলা থেকেই আমাদের থেকে যাওয়া হলুদ গুড়া বিক্রি করে দিয়েছেন। আবার পাড়ার কোন চাচীর তৈরি ঘি কিনে এনে আমাদের খাইয়েছেন। তার মানে আমার মা আর চাচী উভয়ের ই বি এস টী আই করানো উচিত ছিল?

এক্ষেত্রে আমার মতামত হচ্ছে যে কোন ব্যবসায়ের একটা অবজার্ভেশন পিরিয়ড রেখে লাইসেন্স করার ব্যাপার গুলি আসা দরকার। ঔষধির মত সেনসিটিভ আইটেম হলে যেমন প্রস্তুত করার আগেই লাইসেন্স দরকার, তেমন বাদাম ভাজা প্যাকেট করে বেচার জন্য লাইসেন্স করার ব্যবস্থাটা একটু শিথিল বা যেভাবে চলে আসছে সেটায় ইন্ডাস্ট্রি বা দেশি পন্য বিস্তারে বেশি সহায়ক বলে আমি মনে করি।

কোন কোন সিনিয়র ভায়েরা এটাকে নিয়ে মজা করছেন, ধরুন আপনি কুরিয়ার ব্যবসা যখন শুরু করেছিলেন তখনি যদি আপনাকে বলা হত- আপনাকে আলাদা করে রোড ট্রান্সপোর্ট লাইসেন্স নিতে হবে, জিপিও লাইসেন্স নিতে হবে, এন্টি ড্রাগ পরিবহন এর জন্য হস্তখত দিয়ে রাখতে হবে ইত্যাদি। আপনি কি শুরু করতে পারতেন ? কিংবা পথটা কি এত সহজ হত?

মনে রাখবেন যে কোন ইন্ডাস্ট্রি গঠনের চেয়ে তা ধ্বংস করা বা তার ক্ষতি করা অতন্ত্য সহজ ব্যাপার। আপনি আমি যে ক্ষুদ্র বা এই হলুদ বেচা, বাদাম বেচা, শরিষার তেল বেচাকে নিয়ে ট্রল করছি। সেই আমার আপনার মত কারো বাবা মা হয়ত সেগুলা বেচেই আমাদের ফেসবুকে লেখার মত শিক্ষিত করে গড়ে তুলেছেন। পার্থক্য হচ্ছে তারা বিক্রি করেছেন পাড়ায় পাড়ায়। আর এই ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা করছেন গ্রুপে গ্রুপে বা পেইজ এ পেইজ এ।

যাই হোক এই ব্যবসাগুলির নিয়ন্ত্রন আইন কঠিন করে। প্রারম্ভিক লাইসেন্স এর ব্যাপার টা ভেবে দেখার জন্য আমার আকুল আবেদন থাকবে। আবার ব্যবসায়িক সামর্থ্য থাকলে সব সময় দেশের আইন অনুযায়ী লিগ্যাল ডকুমেন্টস বা পলিসি ফলো করে ব্যবসা করার জন্য সবাইকে আহ্বান জানাব।

আমি ওমক করছি তমক

এই ট্রল টা দুই ভাগে হয়েছে – একটা এন্টারটেইন্মেন্ট মুডে (ইয়ারকি)। আর বাকি গুলা হিংসাত্বক মুড। যারা নায়ক নায়িকার স্মৃতি গুলিকে (e-CAB) গ্রুপের উদ্যোক্তাদের পরিচয় এর সাথে সামঞ্জস্যতা দেখিয়ে বিনোদন মুলক পোস্ট করছেন তাদের ব্যাপারে আপাতত আমার কিছু বলার নেই, আমি মনে করি বিনোদন শাখার আওতায় এগুলা করা দোষের কিছু নয়।

কিন্তু সরাসরি ছোট পেশা হিসেবে বা বিচ্ছিন্ন ব্যবসা হিসেবে যে ট্রল গুলি হচ্ছে সেগুলির ব্যাপারে কিছু বলার আগে আমি কয়েকটি প্রশ্ন করতে চাইবো –

ক। আপনি যত বড় স্যার ই হন না কেন যদি চাকুরি করে থাকেন (ইয়া বড় চাকুরি),  আপনার ব্যাপারে আপনার ইন্ডাস্ট্রিতে কাউকে কিছু বললেই বলেন কেন আমি অমক কোম্পানির ম্যানেজার (মানে চাকর আর কি)। কিংবা আপনি ঐ কোম্পানিতে জয়েন করার সময় আপনার সম্পর্কে যখন জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল বা সিভি দিয়ে ছিলেন সেখানে কি লিখেছিলেন সেটা জানার একান্ত ইচ্ছা রয়ে গেল।

এখন আসি আপনি ইয়া বড় ব্যবসায়ী। আপনার বায়ার কে যখন ডিল করেন তখন কি বলেন আমার আয়রন ফ্যাক্টরি আছে আমি সেখান থেকে আমি আয়রন সাপ্লাই দিতে পারব, কিংবা আমি জুতার কোম্পানির মালিক (মানে আমি ওমক বেচি জুতা) আপনার ইচ্ছা মত জুতা দিতে পারব। এরকমই তো বলেন মনে হয়?

গ। আপনি চাকুরিও করেন না ব্যবসাও করেন না, মানে দালালী করার সময় কি বলেন? আমি কুদ্দুস আমার সংগ্রহে মেলা এই করেংগা সেই করেংগা লোক/কোম্পানি আছে। আমি এগুলা করে দিতে পারব। (মানে আমি কুদ্দুস, আমি দালালি করি)

এখন আসি এই ব্যাপার গুলি নিয়ে আমার ব্যক্তিগত অনুভুতি কি। আমি মনে করে ছোট বড়, সকল কাজই কাজ। সকল ব্যবসায় ব্যবসা। ব্যবসা ভাল, খারাপ হতে পারে। ব্যবসার মডেল উন্নত, অনুন্নত মডেল হতে পারে। ব্যবসা ফকিন্নি বা গ্লামার্স হতে পারে। তবে ১০০ গ্রাম জিরা বিক্রিও ব্যবসা আবার ১০০০ কুইন্টাক জিরা বিক্রেতাও ব্যবসায়ী। কুইন্টাল ওলার ব্যবসা দিয়ে কয়েকশত পরিবার চললে এই ১০০ গ্রামের ব্যবসায়ী দিয়েও কয়েকটী পেট আহার করে তাকে কখনোই অবজ্ঞা করা আমার কাছে হিপোক্রেসি মনে হয়। মানে আপনি সকালে স্টাটাস দিলেন খাবার অপচয় করা অন্যায়, কিন্তু বিকালে বলছেন খাবার আয় করা একটি তামাশার কাজ। আমি যে কাজই করি সেটা গর্বের সাথে বলতে পারা আমার অধিকার। কিন্তু আপনি যে কাজ করেননা সেটা বলে আমার টার সাথে তুলনা করে আমাকে মানসিক ভাবে হেয় করা কখনও একটি সুনাগরিকের চরিত্র হতে পারে না। আমাকে যারা ব্যক্তিগত ভাবে চিনেন তারা জানেন, আমি একটি অফিসের পিয়ন থেকে শুরু করে বড় স্যার সবাইকে সমান সম্মান করে কথা বলি। এটা আমার বিবেক বলে তাই করি। আবার একজন চায়ের দোকানে গেলে যে রকম কাস্টোমার আমি, একটা হাইফাই রেস্টুরেন্ট এ গেলেও সমান। আপনার ব্যক্তিগত পছন্দ আলাদা হতে পারে – তবে গোষ্ঠিগত অনুভুতি বা অন্য কারো অনুভিতিতে ইচ্ছা কৃত ভাবে খোচা দেয়া কখনোই ভাল ব্যাপার বলে আমি মনে করি না।

যার কাজ আছে সে কাজ করে, যার কাজ নেই সে খোজ রাখে, সুযোগ খুজে, সুযোগ পেলে আঘাত করে। আঘাত এ যদি কস্ট লাগে তাহলে বুঝে নিবেন আপনার মাঝে ইগো আছে একটূ হলেও। সেটুকুও ফেলেদিন আরো ছোট কাজ করুন (হাসি মুখে করবেন) হিংসুকেরা জ্বলে যাক, পুড়ে যাক।

অনেক বিষয়ে অনেক সময় সিনিয়র বড় ভাইদের সাথে কিছু ব্যাপারে আমার মতে অমিল থাকতে পারে। অনেক সময় তাদের করা কোন কাজ আমি অপছন্দ করতে পারি। করলে আমি সেগুলো পাব্লিক্লি বলিও। আমি কখনো তাদের বিপদের সময় আশার অপেক্ষা করিনা। যাই হোক যারা এই ১০০ গ্রাম বিক্রেতা আপনাদের ধৈর্যের আমি প্রশংসা করি, তবে অবকাঠামো গত ভাবে প্রতিদিন ভাল কিছু শেখা শুরু করেন। বছর পরে যাতে হারিয়ে যেতে না হয় সেদিকে নজর দিন। পরিবার এর পাশে থাকুন। আর ব্যবসায়িক লিগ্যাল ব্যাপার গুলি নিয়ে অবশ্যই পড়তে থাকবেন, সামর্থ্য হলেই সেগুলাকে গুরুত্ব দিয়ে সম্পন্ন করবেন। 

 

Juel Rana