Thursday, February 29, 2024
E-CommarceEvalyNews

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা: ইভ্যালির রাসেলের জামিন আদেশ পেছালো

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা: ইভ্যালির রাসেলের জামিন আদেশ পেছালো

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে রাজধানীর বাড্ডা থানায় করা মামলায় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোহাম্মদ রাসেলের জামিন বিষয়ে আদেশ এক সপ্তাহ পিছিয়েছেন হাইকোর্ট। এসময়ের মধ্যে নিম্ন আদালতে বাদীর সঙ্গে আসামির সমঝোতার একটি কপি সাপ্লিমেন্টারি দিয়ে আসতে বলেছেন আদালত।

আদালত এমন আদেশ দিলে রাসেলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তারা হাইকোর্টের জামিন আবেদনেও বিষয়টি যুক্ত করেছেন। তখন আদালত বিষয়টি এফিডেফিট (হলফনামা) আকারে দিতে বলেন। এরপর আদেশটি ১ সপ্তাহের জন্য মুলতবী করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাসেলের আইনজীবী ব্যারিস্টার মো. আনোয়ার হোসেন। সোমবার (১৫ মে) হাইকোর্টের বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আমিনুল ইসলামের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. আহসানুল করীম। সঙ্গে ছিলেন অ্যাডভোকেট তানভীর আহমেদ খান ও ব্যারিস্টার মো. আনোয়ার হোসেন। আর রাষ্ট্রপক্ষের শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারোয়ার হোসেন বাপ্পী।

গত ১৪ মে এ মামলায় মোহাম্মদ রাসেলের জামিন আবেদনের শুনানি শেষ হয়। আদেশের জন্য আজ সোমবার (১৫ মে) দিন ধার্য করেন হাইকোর্ট। তারই ধারাবাহিকতায় এই আদেশ দিলেন আজ।

২০২১ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির গ্রাহক মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে বাড্ডা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে এ মামলা দায়ের করেন। মামলায় রাসেল-নাসরিন দম্পতিসহ অজ্ঞাত ১৫-২০ জনকে আসামি করা হয়।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে একই বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ইভ্যালি থেকে ইলেকট্রনিক পণ্য কেনার জন্য বিকাশ ও নগদের মাধ্যমে ২৮ লাখ টাকা পাঠান অভিযোগকারী। ইভ্যালিতে অর্ডার দেওয়ার ৪৫ দিনের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি দেওয়ার কথা থাকলেও পরবর্তী সাত মাসেও তিনি পণ্য হাতে পাননি।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রদীপ কুমার দাস ২০২২ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর ওই দম্পতির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

এ মামলায় চলতি বছরের ২ মার্চ ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ এম জুলফিকার হায়াত অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন।

 
Rate this post