ব্রেকিং নিউজঃ জামিনে মুক্তি পেয়েছেন ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন

জামিনে মুক্তি পেয়েছেন ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন

   সব মামলায় জামিনে মুক্তি পেয়েছেন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন। জামিনের  বিষয় নিশ্চিত করেন ইভ্যালির আন্দোলন সমন্বয়ক মোঃ নাসির উদ্দিন ও ইভ্যালির আইনি দল। আজ  বুধবার বিকালে কারাগার থেকে ছাড়া পেয়েছেন শামীমা নাসরিন।  @EvalyFansClub

  ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের মুক্তিতে তাকে জেল গেটে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান বাংলাদেশে ই-কমার্স মার্চেন্ট এসোসিয়েশন (বেকমা), তার পরিবার, ইভ্যালি ফ্যানস ক্লাব ও ইভ্যালির মার্চেন্ট এবং ভোক্তারা। 

জামিনে মুক্তি লাভের পর মার্চেন্ট ভোক্ত ও পরিবারের সদস্যদের সাথে ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন

 তার আগে ৬ জানুয়ারি ইভ্যালির সিইও ও চেয়ারম্যানের চার মামলা জামিন হয়েছে। গতকাল ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের নামে আর কিছু মামলার জামিন হয়েছে। গ্রাহকের কাছ থেকে অর্থ-আত্মসাতের অভিযোগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বাসা থেকে ইভ্যালির সিইও মোহাম্মদ রাসেল ও চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আদালতে শামীমা নাসরিনের পক্ষে জামিন আবেদনের শুনানি করেন আইনজীবি মোঃ আহসান হাবিব। এসব মামলায় আইনজীবি বিভিন্ন সময় জামিন আবেদন করলে আদালত শুনানি নিয়ে তাদের জামিন মঞ্জুর করেন। এই মুহূর্তে আর কোন মামলা শামীমা নাসরিনের গ্রেফতারি পরোয়ানা নাই বলে জানান আইনজীবি মোঃ আহসান হাবিব।

আন্দোলন সমন্বয়ক মোঃ নাসির উদ্দিন বলেন, তার জামিনের মাধ্যমে  বাংলাদেশ ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রির বিজয় প্রথম ধাপ এগিয়ে গিয়েছে। সম্পূর্ণ বিজয় জন্য জনাব রাসেলের মুক্তি দ্রুত প্রয়োজন।  তাদের হাত ধরে বাংলাদেশের ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রি পথচলা আরও একধাপ এগিয়ে যাবে। 

আন্দোলন আরেক অন্যতম নেতা ফয়সাল ইসলাম জানান, ইভ্যালির সিইও জনাব রাসেলের আরো চারটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে, যার জন্য তিনি এই মুহূর্তে জামিনে মুক্তি পাচ্ছেন না।

তিনি আরো বলেন, আমরা সকলেই বাংলাদেশের বিচার ব্যবস্থার প্রতি আস্থাশীল। সামান্য কিছু অভিযোগের প্রেক্ষিতে শামীমা নাসরিন জামিন পেলেও জনাব রাসেল এখন জেলে আছেন। কিছু মামলায় জামিন হলেও বাকী কিছু মামলা থাকার কারনে তিনি মুক্তি পাচ্ছে না। জনাব রাসেল মুক্তি ফেলে আমরা লক্ষ লক্ষ ভোক্তা ও মার্চেন্টের স্বার্থ রক্ষা হবে। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার এবং মাননীয় বিচারিক আদালতের নিকট ন্যায় বিচারের দাবি জানাচ্ছি। আমরা আশাবাদী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর যথাযথ পদক্ষেপে জনাব রাসেল ন্যায় বিচার পাবেন।

ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামিমা নাসরিনের জামিন প্রসঙ্গে ইভ্যালি ফ্যানস ক্লাবের এডমিন মোফতাছিম বিল্লাহ নাহিদ বলেন, ইভ্যালির গ্রাহক-মার্চেন্ট দীর্ঘ ছয় মাস অপেক্ষা করছেন সিইও ও চেয়ারম্যানের জামিনের জন্য। চেয়ারম্যানের জামিনে কিছুটা স্বস্তি পেলেও গ্রাহক-মার্চেন্ট অপেক্ষা করছেন জনাব রাসেলের মুক্তির জন্য। গ্রাহক-মার্চেন্টের দাবী, মোহাম্মদ রাসেলকেও দ্রুত মুক্তি দিয়ে ইভ্যালির ব্যবসা পরিচালনা করার সুযোগ দেয়া হোক। তাতে লক্ষ লক্ষ গ্রাহক ও হাজার হাজার সেলারের জীবন রক্ষা হবে। 

তিনি ইভ্যালির গ্রাহকদের উদ্দেশ্যে বলেন, মাঝে মাঝে ইভ্যালির কিছু গ্রাহক খুবই হতাশ হয়ে যাচ্ছেন। আপনাদের হতাশ হবার কোন কারণ নাই। আমাদের সময় কিছুটা খারাপ যাচ্ছে। ইতি মধ্যে কিছু ভাল খবর পেয়েছেন, আরো পাবেন। রাত শেষে যেমন সকাল হয়, আমাদেরও সকাল হবে, ইনশাআল্লাহ্‌। এখন আমাদের জন্য ধৈর্যের পরীক্ষা। আমরা সবাই একসাথে ইভ্যালিকে সহযোগিতা করলে, ইভ্যালি আবারও আগের মত ঘুরে দাঁড়াবে। আমাদের মনে রাখতে হবে, ইভ্যালির দেনা জনাব রাসেল দম্পতি ছাড়া অন্য কেও পরিশোধ করবে না  কিংবা করতে পারবেও না। যত দ্রুত সম্ভব ইভ্যালির সিইও মোঃ রাসেলকে মুক্তি দেওয়া প্রয়োজন।

আদ/ইফক…

Rate this post
%d bloggers like this: